সোমবার, ২১ আগস্ট ২০১৭, ৬ ভাদ্র ১৪২৪, ২৮ জিলকদ, ১৪৩৮ | ১১:৪৮ পূর্বাহ্ন (GMT)
শিরোনাম :
  • নির্বাচনকালীন সরকারের রূপরেখা রাষ্ট্রপতিকে দিয়েছে আ.লীগ: কাদের
  • ইসি নয়, নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে হার্ডলাইনে যাবে বিএনপি
রোববার, ১৩ আগস্ট ২০১৭ ০৮:১২:১৫ পূর্বাহ্ন Zoom In Zoom Out No icon

তিস্তা ব্যারেজ এলাকায় রেড এলার্ট জারী

লালমনিরহাট: লালমনিরহাটে অবস্থিত দেশের বৃহত্তম সেচ প্রকল্প তিস্তা ব্যারাজ এলাকায় শনিবার রাত থেকে রেড এলার্ট জারি করেছে পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো)। গত প্রায় এক সপ্তাহ থেকে বিরাজমান ভারী বর্ষণ ও ভারত থেকে প্রচন্ড গতিতে পানি বাংলাদেশের দিকে ধেয়ে আসায় তিস্তা ব্যারাজ হুমকির মুখে পড়েছে। রোববার ভোর ৬টা থেকে দোয়ানী পয়েন্টে তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার ৬৫ সেন্টিমিটার ও কুলাঘাট পয়েন্টে ধরলা নদীর পানি বিপদসীমার ১০৮ সে.মি উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এতে পানিবন্দী হয়ে পড়েছেন জেলার প্রায় দু’ লক্ষাধিক মানুষ। তিস্তা ব্যারাজের সব গেট খুলে দিয়েও পানির গতি নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না। ফলে তিস্তা পাড়ে লোকজনের মাঝে আতংক বিরাজ করছে। ফ্লাট বাইপাশ এলাকার লোকজনদের নিরাপদ স্থানে সরে যেতে মাইকিং করা হচ্ছে। ব্যারাজের ফ্লাট বাইপাশ এলাকার উপর দিয়েও পানি প্রবাহিত হতে দেখা গেছে। ফলে পানি ঢুকে পড়েছে হাতীবান্ধা ও পাটগ্রাম উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ বেশ কিছু এলাকায়। ব্যারাজ রক্ষার্থে যে কোনো মুহুর্তে ফ্লাট বাইপাশ কেটে দেয়া হতে পারে। এতে জেলার পাঁচ উপজেলায় বন্যা পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ হয়ে পড়বে। ইতিমধ্যে হাজার হাজার বিঘা জমির সদ্য রোপনকৃত আমন ধান, সবজীসহ নানা ফসল ও রাস্তা-ঘাট তলিয়ে গেছে পানির নীচে। পানিবন্দী রয়েছে শতাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন স্থাপনাও। বন্ধ রয়েছে শত শত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান । এদিকে, আদিতমারী উপজেলার সারপুকুর ইউনিয়নের চওড়াটারী গ্রামে গত শনিবার সন্ধ্যায় বন্যায় জমে থাকা নর্দমার পানিতে ডুবে মোস্তফা বাবু (৬) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। তার বাবার নাম আলতাব আলী। মৃত্যু’র বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সারপুকুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আজিজুল ইসলাম প্রধান। ডালিয়া (দোয়ানী ব্যারেজ) পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ব্যারাজ রক্ষার্থে সব রকম চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শাফিউল আরিফ জানান, বন্যা পরিস্থিতি মোকাবেলায় আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাচ্ছি। বন্যার্ত লোকজনের নিরাপদস্থানে সরিয়ে আনাসহ তাদের মাঝে শুকনা খাবার বিতরণ অব্যাহত রয়েছে।

CLOSE[X]CLOSE

আরো খবর