বুধবার, ২৯ মার্চ ২০১৭, ১৫ চৈত্র ১৪২৩, ১ রজব, ১৪৩৮ | ০৩:১৫ পূর্বাহ্ন (GMT)
শিরোনাম :
  • নির্বাচনকালীন সরকারের রূপরেখা রাষ্ট্রপতিকে দিয়েছে আ.লীগ: কাদের
  • ইসি নয়, নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে হার্ডলাইনে যাবে বিএনপি
বৃহস্পতিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৭ ০৪:৫৭:৩০ অপরাহ্ন Zoom In Zoom Out No icon

কান ধরে সিজদা করানোর ঘটনায় সেই এসআই প্রত্যাহার

 

 

কক্সবাজার: কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলায় বৃদ্ধ ড্রাইভারকে প্রকাশ্যে কানে ধরে সিজদা দেয়ানোর ঘটনার ছবি অনলাইনসহ ফেসবুকে ভাইরাল হলে টনক নড়ে প্রশাসনের। এরই জের ধরে পেকুয়া থানার বিতর্কিত এসআই তৌহিদুল ইসলামকে ক্লোজড করে কক্সবাজার পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টায় তাকে ক্লোজড করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জিয়া মোহাম্মদ মোস্তাফিজ ভূঁইয়া।

মোস্তাফিজ ভূঁইয়া বলেন, মীর কাশেম নামের এক ট্রাক চালককে প্রকাশ্যে রাস্তার ওপর কানে ধরে সিজদা দিতে বাধ্য করানোর অভিযোগে কক্সবাজারের পুলিশ সুপার ড. এ কে এম ইকবাল হোসেনের নির্দেশে এসআই তৌহিদুল ইসলামকে ক্লোজড করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়ার জন্য তাকে কক্সবাজার পুলিশ লাইনে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।

 

কক্সবাজারের পুলিশ সুপার ড. এ কে এম ইকবাল হোসেন বলেন, ‘আমি চট্টগ্রামে একটি মিটিং আছি। নিউজটি অনলাইনে দেখার পর সাথে সাথে এসআই তৌহিদুলকে ক্লোজড করার নির্দেশ দিয়েছি। পাশাপাশি চকরিয়া সার্কেলের সিনিয়র পুলিশ সুপার (এএসপি) কাজী মতিউল ইসলামকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করারও নির্দেশ দিয়েছি। ওই তদন্ত কমিটিকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে। সেই রিপোর্টে যদি ওই পুলিশ কর্মকর্তা অভিযুক্ত হয় তাকে বরখাস্ত করা হবে।’

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার বেলা ১২টার দিকে কক্সবাজারের পেকুয়া সদর ইউনিয়নের চৌমুহনী স্টেশনে মীর কাশেম নামের এক ট্রাক চালককে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে প্রকাশ্যে কানে ধরে সিজদা দিতে বাধ্য করায় এসআই তৌহিদুল ইসলাম। তিনি ট্রাক চালকের বিরুদ্ধে তার গায়ে গাড়ি লাগার অভিযোগ করেন। পরে এই ঘটনা ছবি অনলাইনসহ মিডিয়ায় ভাইরাল হলে প্রশাসনে তোলপাড় শুরু হয়।

[X]CLOSE

আরো খবর