রোববার, ২২ অক্টোবর ২০১৭, ৭ কার্তিক ১৪২৪, ১ সফর, ১৪৩৯ | ১০:৫০ অপরাহ্ন (GMT)
শিরোনাম :
  • নির্বাচনকালীন সরকারের রূপরেখা রাষ্ট্রপতিকে দিয়েছে আ.লীগ: কাদের
  • ইসি নয়, নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে হার্ডলাইনে যাবে বিএনপি
সোমবার, ২০ মার্চ ২০১৭ ০৪:৪১:১৩ পূর্বাহ্ন Zoom In Zoom Out No icon

সাকিব ও তামিমকে নিয়ে যা বললেন হাথুরু

 

 

 

 

বেশিরভাগ সময় খোঁচা খোঁচা দাড়ি থাকে মুখে। আজ সকাল থেকেই দাড়িমুক্ত মুখ চন্ডিকা হাথুরুসিংেহের। মুশফিক, তামিম, সাকিব, মোস্তাফিজ, সাব্বির, মোসাদ্দেক ও মিরাজেদের সাফল্যে সেই ক্লিন সেভড চেহারা বিকেলে আরও উজ্জ্বল হলো। 

এমন বিজয়ের পর মিডিয়া খুঁজলো বিজয়ের নেপথ্য নায়ক কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহকে। পাওয়াও গেলো তাকে; কিন্তু নিজ থেকেই বলে দিলেন, ‘প্লিজ ম্যানেজারকে বলুন। ম্যানেজার বললে আমি কথা বলবো।’

শেষ পর্যন্ত অবশ্য আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে আসেননি হাথুরু। তবে ড্রেসিং রুমের সামনে দাঁড়িয়ে বাংলাদেশের প্রচার মাধ্যমের সঙ্গে বেশ কিছুক্ষণ প্রাণ খুলেই কথা বলেছেন। আজকাল তার কর্মকাণ্ড নিয়ে কথা হচ্ছে বেশি। সমালোচনার কাঁটাও বিছানো চারিদিকে। 

একটু বেশি খবরদারির কারণে আরও বেশি সমালোচনার শিকার বাংলাদেশ কোচ। ঠিক এমন সময় কলম্বো টেস্ট জয় তার জন্য অবশ্যই স্বস্তির। তবে কথা-বার্তায় কোনরকম অস্বস্তিতে আছেন বলে মনে হলো না। এমন সাফল্যের জন্য নিজেকে কৃতিত্ব না দিয়ে পরিষ্কার ক্রিকেটারদের প্রশংসা করলেন। 

বললেন, ‘সব কৃতিত্ব ছেলেদের। কি করনীয়, তারা নিজেরা বসে সব কিছু ঠিক কওে নিয়েছে।’ এই টেস্টে জয় ছাড়াও আপনার কাছে কি বেশি ভাল লেগেছে? এমন প্রশ্নের জবাবে হাথুরু বলেন, ‘ছেলেরা পাঁচ দিন লড়াই করার শক্তি ও সামর্থ্য দেখিয়েছে। সেটা ম্যাচ জয়ে রেখেছে বড় ভূমিকা।’

তামিমের ব্যাটিংয়ে খুশি হলেও আউট হবার আগে, সে সিঙ্গেলস নেয়নি। সেটা ঠিক নজরে পড়েছে কোচের। পরে দেখা গেছে, তামিমের আউট হওয়ার সময় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন তিনি। খেলা শেষে তামিমের ব্যাটিং নিয়ে কথা বলতে গিয়ে হাথুরু বলেন, ‘আমি তার আউটের ধরন দেখে হতাশ বা ক্ষুব্ধ নই। তবে আউট হবার আগের বলে সে যে সিঙ্গেলস নেয়নি, তাতে ক্ষুব্ধ। ওই সিঙ্গেলস হলে হয়ত তামিম আউট হতো না।’
 
এ টেস্টের আগে তিনি বলেছিলেন সাকিবের বলের ধার কমে গেছে। আগের মত নেই। এখন তিনি কি বলবেন? এ প্রশ্নের জবাবে হাথুরু বলেন, ‘আসলে কি আমি এমন কথা বলেছিলাম?’ যখন বলা হলো অন রেকর্ড আছে। তখন কথা ঘুরিয়ে বললেন, ‘আসলে আমি ২০১০ সালে যখন সাকিবকে প্রথম দেখি তখন তার বলে ধার সত্যিই বেশি ছিল। এখন যা নেই। তাই ওই কথা বলেছিলাম।’ 

এটুকু বলার পর তার শেষ কথা, ‘আমি সাকিবের সাথে বসে কথা বলেছি। ওই সময় তার বোলিং নিয়ে কথাও বলেছি। কিছু টেকনিক্যাল কথাবার্তাও হয়েছে আমার ও সাকিবের মধ্যে। আমার মনে হয় তারই রেশ ধরে সাকিবের ভাল বল করেছে হয়তো।’

আরো খবর