শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৮, ১২ ফাল্গুন ১৪২৪, ৮ জমাদিউস সানি, ১৪৩৯ | ০৪:২০ পূর্বাহ্ন (GMT)
শিরোনাম :
  • নির্বাচনকালীন সরকারের রূপরেখা রাষ্ট্রপতিকে দিয়েছে আ.লীগ: কাদের
  • ইসি নয়, নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে হার্ডলাইনে যাবে বিএনপি


সোমবার, ১২ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ ১১:০৪:২৩ পূর্বাহ্ন Zoom In Zoom Out No icon

খালেদা জিয়াকে দীর্ঘদিন কারাগারে রাখার চেষ্টা সরকারের: বার সভাপতি

বেগম খালেদা জিয়ার আইনজীবী ও সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির (বার) সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন বলেছেন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে সরকার ভয় পায়। তাই তাকে দীর্ঘদিন কারাগারে রাখার জন্য বিভিন্ন মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। এটা সরকার নিউ ডিভাইস আবিষ্কার করেছে। এই ডিভাইসটা দিয়ে সরকার একটি মামলায় তাকে কারাগারে রেখে আরো অনেকগুলো মামলায় গ্রেফতার দেখাবে। অতীতে কখনো দেখিনি যে একটি মামলায় গ্রেফতার করে আরো মামলায় গ্রেফতার দেখায়। সরকারের চেষ্টা খালেদা জিয়াকে দীর্ঘদিন কারাগারে রাখা। সোমবার খালেদা জিয়াকে শ্যোন অ্যারেস্ট দেখানোর পর গণমধ্যামকে তিনি এসব কথা বলেন। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কারাগারে রয়েছেন। এছাড়াও আরো ৫টি মামলায় বেগম জিয়াকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। সোমবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) একই সঙ্গে কুমিল্লার একটি মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। বেগম খালেদা জিয়ার আইনজীবী অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন বলেন, বেগম খালেদা জিয়া বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী এবং জনপ্রিয়তার দীর্ঘদিন কারাগারে রাখার জন্য সরকার বিভিন্ন প্রচেষ্টা গ্রহণ করবেন। ইতিমধ্যে একটি মামলায় বিচার হয়ে ৫ বছরের কারাদণ্ড দেয়া রয়েছে। সেই মামলাটিতে আপিলের প্রক্রিয়ার মধ্যে রয়েছি। যখনই আমরা প্রমাণপত্র পাবো তখনই আপিল দায়ের করবো। পরবর্তীতে বেল আবেদন করবো। খালেদা জিয়ার আইনজীবী বলেন, সরকার বুঝতে পেরেছে দেশের সর্বোচ্চ আদালত খালেদা জিয়াকে বেল দিতে পারে। সেই ক্ষেত্রে সরকারের চেষ্টা তাকে দীর্ঘদিন কারাগারে রাখা। ইতিমধ্যে জানতে পেরেছি, সরকার বিভিন্ন জায়গায় কিছু রাজনৈতিক উদ্দেশ্যেমূলক ও হয়রানিমূলক মামলা করে রেখেছে, যেখানে বেগম খালেদা জিয়ার কোনো সম্পৃক্ততা নেই। সোমবার জানতে পেরেছি কুমিল্লার একটি মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। যেখানে খালেদা জিয়ার এফআইআরেতে নাম ছিল না। সেই মামলায় গ্রেফতার করার জন্য আদেশ দিয়েছে। যদিও এ রকম আদেশ দেয়ার আগে খালেদা জিয়ার নলেজে অন্তত আনা উচিত ছিল, যে তার বিরুদ্ধে এরকম একটি মামলা হয়েছে। কোনো রকম কোনো সমন না দিয়েই তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। তিনি আরো বলেন, এর অর্থই হলো বেগম খালেদা জিয়াকে যেহেতু সরকার ভয় পায়। তাই তাকে দীর্ঘ দিন কারাগারে রাখার জন্য গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। এটা নিউ ডিভাইস সরকার আবিষ্কার করেছে। এই ডিভাইসটায় সরকার একটি মামলায় কারাগারে রেখে আরো অনেকগুলো মামলায় গ্রেফতার দেখাবে। এটা অতীতে কখনো দেখিনি যে একটি মামলায় গ্রেফতার করে আরো অধিক মামলায় গ্রেফতার দেখায়। অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন বলেন, এই সব মামলায় মোকাবিলা করার জন্য একটি আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। যতগুলো মামলা রয়েছে সবগুলোই আমরা আইনগত ভাবে মোকাবিলা করবো।





আরো খবর