শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৮, ১১ ফাল্গুন ১৪২৪, ৭ জমাদিউস সানি, ১৪৩৯ | ০২:০৮ পূর্বাহ্ন (GMT)
শিরোনাম :
  • নির্বাচনকালীন সরকারের রূপরেখা রাষ্ট্রপতিকে দিয়েছে আ.লীগ: কাদের
  • ইসি নয়, নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে হার্ডলাইনে যাবে বিএনপি


শুক্রবার, ২৬ জানুয়ারী ২০১৮ ১১:৪৮:১৮ পূর্বাহ্ন Zoom In Zoom Out No icon

এশিয়ায় এইডস আক্রান্ত মৃত্যুতে ভারত প্রথম, বাংলাদেশ ১০ম

এইচআইভি তথা এইডস আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুতে এশিয়ার ১০ম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। তালিকায় শীর্ষে আছে প্রতিবেশী দেশ ভারত। শুক্রবার এইচআইভি নিয়ে কাজ করা জাতিসংঘের সংস্থা ইউএনএইডস এই তথ্য জানিয়েছে। এশিয়া নিউজ নেটওয়ার্ক এ সংবাদ দিয়েছে। ইউএনএইডস’র রিপোর্ট অনুযায়ী, এশিয়ান দেশগুলোর মধ্যে এইচআইভি আক্রান্তের দশম অবস্থানে বাংলাদেশ দাঁড়িয়ে আছে। ২০১৬ সালে এইডএসের কারণে বাংলাদেশ প্রায় ১ হাজার জন লোক মারা গেছেন বলে রিপোর্টে বলা হয়েছে। রিপোর্ট অনুযায়ী এশিয়ায় ভারতের সর্বোচ্চ মৃত্যু ঘটে। একই বছরে ভারতে এই রোগে ৬২ হাজার লোক মারা যায়। তবে এশিয়াতে এইডস সম্পর্কিত মৃত্যুর সংখ্যা আগের চেয়ে অনেকটা কমেছে। ২০১০ সালে এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের ২ লাখ ৪০ হাজার এইডস-সংক্রান্ত বক্তির মধ্যে মৃত্যু হয়েছিল এক লাখ ৭০ হাজার। ইউএনএইডসের প্রতিবেদন মতে, বর্তমানে এশিয়া প্যাসিফিকের ৫১ লাখ মানুষ এইচআইভি আক্রান্ত। অথচ তাদের ২৪ লাখ চিকিৎসা নেয়ার সুযোগ পায়। সংস্থাটির এই তালিকায় অবশ্য চীনকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। এইচআইভি-জনিত মৃত্যুতে সারা বিশ্বের দেশগুলোর মধ্যে তৃতীয় বৃহত্তম জনসংখ্যার দেশ ভারতের অবস্থান তৃতীয়। এর আগে আছে দক্ষিণ আফ্রিকা ও নাইজেরিয়া। ধারণা করা হচ্ছে, এই রোগে চীনে গত বছর মৃত্যুর সংখ্যা চার লাখ ৩০ হাজার থেকে ১৫ লাখের মধ্যে হবে। তবে এ ব্যাপারে কোনো তথ্য দেয় না চীনা প্রশাসন। পরিসংখ্যানে দেখা যায়, এশিয়া মহাদেশে এইডস অক্রান্ত হয়ে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয় ভারতে, ৬২ হাজার। দ্বিতীয় অবস্থনে রয়েছে ইন্দোনেশিয়া, দেশটিতে এইডস আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৩৮ হাজার। তৃতীয় অবস্থানে থাইল্যান্ড, মৃত্যু ১৬ হাজার। চতুর্থ অবস্থানে ভিয়েতনাম, মৃত্যু ৮ হাজার। পঞ্চম মিয়ানমার, মৃত্যু ৭ হাজার ৮শ। ষষ্ঠ অবস্থানে মালয়েশিয়া, মৃত্যু ৭ হাজার। ৭ম অবস্থানে পাকিস্তান, মৃত্যু ৫ হাজার ৫শ। ৮ম অবস্থানে কম্বোডিয়া, মৃত্যু ১ হাজার, ৮শ। এর পরে রয়েছে নেপাল। দেশটিতে একই সময় এইডস আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৭শত জনের। আর বাংলাদেশে ২০১৭ সালে এইডস আক্রান্ত ১ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে। সমান সংখ্যক মৃত্যু হয়েছে ফিলিপাইনেও। সেই হিসাবে যৌথভাবে ১০ম অবস্থানে রয়েছে এ দুটি দেশ। এছাড়া, লাউসে ৫শ, শ্রীলঙ্কায় ২শ ও মঙ্গোলিয়ায় এইডস আক্রান্ত ১শ মানুষের মৃত্যু হয়েছে।





আরো খবর