রোববার, ২১ জানুয়ারী ২০১৮, ৮ মাঘ ১৪২৪, ৪ জমাদিউল আওয়াল, ১৪৩৯ | ০২:৪৭ অপরাহ্ন (GMT)
শিরোনাম :
  • নির্বাচনকালীন সরকারের রূপরেখা রাষ্ট্রপতিকে দিয়েছে আ.লীগ: কাদের
  • ইসি নয়, নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে হার্ডলাইনে যাবে বিএনপি


শনিবার, ১৩ জানুয়ারী ২০১৮ ০১:০৪:৪২ অপরাহ্ন Zoom In Zoom Out No icon

হবিগঞ্জে দুই দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে আহত ৫০

হবিগঞ্জের লাখাইয়ে পৃথক ঘটনা দুই পক্ষের মধ্য সংঘর্ষে অন্তত ৫০ জন আহত হয়েছেন। শনিবার উপজেলার তেঘরিয়া ও মনতৈল গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশ দুইজনকে আটক করেছে। সংঘর্ষে আহতদের মধ্যে একজনকে ঢাকা, একজনকে সিলেট ও বাকিদের সদর আধুনিক হাসপাতাল এবং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, উপজেলার তেঘরিয়া গ্রামের হাওরে ৪ কেদার জমি রয়েছে। যার মালিকানা গ্রামবাসী দাবি করছে। উক্ত জমির পাল্টা মালিকানা দাবি করছে ওই গ্রামের বাসিন্দা মিলন মিয়াও। এ নিয়ে গ্রামবাসীর সঙ্গে তার দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছে। এর মাঝে গ্রামবাসীর পক্ষে নেতৃত্ব দেন সাফিন হক। উক্ত বিবাদমান জমি নিয়ে উভয়পক্ষের মাঝে প্রায় ৭ বছর ধরে আদালতে মামলা মোকদ্দমাও চলছে। ইতোমধ্যে আদালত থেকে উক্ত জমির ওপর ১৪৪ ধারা জারি করা হয়। সম্প্রতি মিলন মিয়া বিরোধপূর্ণ জমির দখল নিতে মরিয়া হয়ে ওঠেন। শুক্রবার জমির দখল নেয়ার প্রস্তুতিও নেন তিনি। এ খবর গ্রামবাসীর মাঝে ছড়িয়ে পড়লে শনিবার উভয়পক্ষ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। দুই ঘণ্টাব্যাপী চলা সংঘর্ষে অন্তত ৪০ জন আহত হন। এর মাঝে আশঙ্কাজনক অবস্থায় নাজিম উদ্দিনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও লিটন মিয়াকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। অপরদিকে মনতৈল গ্রামের কামাল মিয়ার নিকট থেকে কিছু জমি কয়েক বছর পূর্বে বন্ধক নেন একই গ্রামের রেনু মিয়া। ওই জমির বন্ধকের টাকা ফেরত না দিয়েই জমিটি ফেরত নিতে চান কামাল মিয়া। এনিয়ে তাদের মাঝে ঝগড়া হয়। এর জের ধরে উভয়ের পক্ষের লোকজন শনিবার সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে অন্তত ১০ জন আহত হন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে কামাল মিয়ার পক্ষের মহারাজ মিয়া এবং রেনু মিয়াকে আটক করে। লাখাই থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বজলার রহমান জানান, বর্তমানে উভয় গ্রামের পরিস্থিতি শান্ত আছে। তেঘরিয়া গ্রামে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।




আরো খবর