সোমবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৭, ৮ কার্তিক ১৪২৪, ২ সফর, ১৪৩৯ | ১১:৩৯ পূর্বাহ্ন (GMT)
শিরোনাম :
  • নির্বাচনকালীন সরকারের রূপরেখা রাষ্ট্রপতিকে দিয়েছে আ.লীগ: কাদের
  • ইসি নয়, নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে হার্ডলাইনে যাবে বিএনপি
শনিবার, ১২ আগস্ট ২০১৭ ১০:৪৯:৫৫ পূর্বাহ্ন Zoom In Zoom Out No icon

রামেক নার্সকে লাঞ্ছিত, বাবাসহ ছাত্রলীগ নেতা আটক

রাজশাহী: রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ছাত্রলীগ নেতা ও চিকিৎসা নিতে আসা তার বাবার হাতে সিনিয়র স্টাফ নার্স লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এর প্রতিবাদে হাসপাতালের নার্সরা আড়াই ঘণ্টা কর্মবিরতি পালন করেন। পরে ওই ছাত্রলীগ নেতা ও তার বাবাকে পুলিশে দেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, শনিবার সকাল ১০টার দিকে মহানগর ছাত্রলীগের ৮নম্বর ওয়ার্ড যুগ্ম সম্পাদক হিমেল হাসপাতালের ৩৬ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন তার বাবা সাবেক সেনা কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলমকে দেখতে যান। এ সময় তিনি দায়িত্বরত সিনিয়র স্টাফ নার্স ফেরদৌসি খাতুনের কাছে তার বাবার চিকিৎসার সম্পর্কে জানতে চান। কথা বলার এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হয়ে যায়। তখন নার্স ফেরদৌসি খাতুনকে লাঞ্ছিত করে ছাত্রলীগ নেতা হিমেল। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওই নার্স হিমেলের গালে চড় দেন। এতে হিমেল আরো ক্ষিপ্ত হয়ে ফেরদৌসি খাতুনকে ধাক্কা দেন। তখন তার বাবা এসে দু’জনে মিলে নার্সের গায়ে হাত তুলেন এবং অশ্লিল আচরণ করেন। এদিকে, সহকর্মীকে লাঞ্ছিত করাকে কেন্দ্র করে হাসপাতালের অন্যান্য সিনিয়র স্টাফ নার্সদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে তারা কর্মবিরতিতে যান। পরে হাসপাতালের প্রশাসনিক কর্মকর্তার হস্তক্ষেপে পুলিশ গিয়ে ছাত্রলীগ নেতা হিমেল এবং তার বাবা জাহাঙ্গীর আলমকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। এরপর পরিস্থিতি শান্ত হয়। নগরীর রাজপাড়া থানার ওসি হাফিজুর রহমান বলেন, ‘নার্সকে মারপিট এবং তার সঙ্গে অশ্লিল আচরণ করার জন্য রোগী এবং তার ছেলেকে আটক করা হয়েছে। এখন হাসপাতালের পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে এবং মামলার প্রস্তুতি চলছে।’ হাসপাতালের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মোতাহার হোসেন জানান, তার সঙ্গে নার্সরা বেলা ১১টার দিকে দেখা করে সিনিয়র স্টাফ নার্স ফেরদৌসি খাতুনকে মারপিট এবং তার সঙ্গে অশ্লিল আচরণের বিচার দাবি করেন। এ সময় প্রশাসনিক কর্মকর্তা সিনিয়র স্টাফ নার্সদের কথা শুনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন। পরে দুপুর ১২টার দিকে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

আরো খবর