বৃহস্পতিবার, ১৭ আগস্ট ২০১৭, ২ ভাদ্র ১৪২৪, ২৪ জিলকদ, ১৪৩৮ | ১১:০৮ অপরাহ্ন (GMT)
শিরোনাম :
  • নির্বাচনকালীন সরকারের রূপরেখা রাষ্ট্রপতিকে দিয়েছে আ.লীগ: কাদের
  • ইসি নয়, নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে হার্ডলাইনে যাবে বিএনপি
বুধবার, ১১ জানুয়ারী ২০১৭ ০৪:১৪:০০ পূর্বাহ্ন Zoom In Zoom Out No icon

ছেলেদের সঙ্গেই মুসলমান মেয়েদের সাঁতার শিখতে হবে

সুইজারল্যান্ডে স্কুলে মুসলমান মেয়েদেরকে ছেলেদের সঙ্গেই সুইমিং পুলে সাঁতার শিখতে হবে। ইউরোপীয় মানবাধিকার আদালত (ইসিএইচআর) এ রায় দিয়েছে বলে মঙ্গলবার বিবিসি জানিয়েছে। স্কুলের ছেলে-মেয়েদের একই সুইমিং পুলে সাঁতার শেখাতে পাঠানোর বিরুদ্ধে সুইজারল্যান্ডের এক মুসলমান দম্পতি ইসিএইচআরে মামলা করেছিলেন। বাসেল শহরে বসবাসরত তুর্কি বংশোদ্ভূত ওই দম্পতি তাদের কিশোরী দুই মেয়েকে ছেলেদের সঙ্গে সাঁতার শেখানোর ক্লাশে না পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। এ ঘটনার পর স্কুল কর্তৃপক্ষ অভিভাবকত্বের দায়িত্ব পালনে অবহেলার অভিযোগে তাদের ১ হাজার ৩৮০ মার্কিন ডলার জরিমানা করে। সুইস কর্তৃপক্ষের দাবি, যেসব মুসলমান মেয়ে বয়ঃসন্ধিতে পৌঁছেছে তাদের ক্ষেত্রেই ছেলেদের সঙ্গে একই সুইমিং পুলে সাঁতার না কাটার বিষয়টি বিবেচনা করা যায়। কিন্তু ওই দম্পতির মেয়েরা তখনও সেই বয়সে পৌঁছেনি। স্কুল কর্তৃপক্ষ ব্যক্তিগত চিন্তাভাবনা ও ধর্মীয় বিধান লঙ্ঘন করছে যুক্তি তুলে ধরে বিষয়টি নিয়ে সুইস আদালতের শরণাপন্ন হন ওই দম্পতি। পরে মামলাটি ইউরোপীয় মানবাধিকার আদালতে পাঠানো হয়। আদালত সুইস কোর্টের সিদ্ধান্তই বহাল রেখেছে। ইউরোপীয় আদালতের বিচারকরা সুইস স্কুল কর্তৃপক্ষের নীতি ধর্মীয় স্বাধীনতার ওপর এক ধরনের হস্তক্ষেপ বলে স্বীকার করে নিয়েছেন। তবে এক্ষেত্রে ধর্মীয় অধিকার লঙ্ঘিত হয়েছে বলে মনে করেন নি বিচারকরা। তারা বলেছেন, সমাজে অন্য সবার সঙ্গে মিলেমিশে থাকার শিশুদের শিক্ষার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। বিশেষ করে অভিবাসী শিশুদের জন্য। সুইস কর্তৃপক্ষের তাদের পছন্দমত নিজেদের শিক্ষা ব্যবস্থা পরিচালনা করার অধিকার আছে।

 
 

CLOSE[X]CLOSE

আরো খবর