রোববার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭, ৩ পৌষ ১৪২৪, ২৮ রবিউল আওয়াল, ১৪৩৯ | ১২:৩২ পূর্বাহ্ন (GMT)
শিরোনাম :
  • নির্বাচনকালীন সরকারের রূপরেখা রাষ্ট্রপতিকে দিয়েছে আ.লীগ: কাদের
  • ইসি নয়, নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে হার্ডলাইনে যাবে বিএনপি


বৃহস্পতিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৭ ০৪:২৬:৩৫ পূর্বাহ্ন Zoom In Zoom Out No icon

ভারতে গাড়ির ভিতর যুবতীকে গণধর্ষণ

কাজ দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে তাঁকে দেখা করতে বলে পূর্ব পরিচিত দুই যুবক। ওই যুবতী (২৩)দেখা করতে না চাইলেও জোর করে তাঁকে ওই দু’জন গাড়িতে তুলে নেয়। এবং গাড়িতেই তাঁকে গণধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ। মঙ্গলবার পশ্চিম মেদিনীপুরের গড়বেতার ওই ঘটনায় অভিযুক্তরা নিগৃহীতাকে রাস্তায় ফেলে পালানোর চেষ্টা করলে স্থানীয়রা তাদের ধরে ফেলে। পুলিশ জানায়, ঘটনার দিন রাতেই সৌমিত্র ঘোষ, সুশোভন দাস ও সঞ্জিত গুপ্তা নামে তিনজনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করেন যুবতীর পরিবার। সৌমিত্র কলকাতার টালার নন্দকিশোর স্ট্রিট এলাকার বাসিন্দা। পূর্ব মেদিনীপুরের চন্ডীপুরের বামুনাড়া কসবা এলাকায় বাড়ি সুশোভনের। অপর অভিযুক্ত সঞ্জিত গুপ্তা গাড়ি চালাচ্ছিল। সে চন্দ্রকোনা রোডের অপর্ণাপল্লির বাসিন্দা। বুধবার ধৃতদের গড়বেতা আদালতে তোলা হলে বিচারক পাঁচদিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেন। কাজ পাইয়ে দেওয়ার নাম করে ওই স্নাতকোত্তরের ছাত্রীকে তাঁদের সঙ্গে দেখা করতে বলে ওই ২ যুবক। তরুণী দেখা করতে না চাইলে বাড়ির অদূরে তাঁকে জোর করে ওই যুবকেরা গাড়িতে তুলে নেয়। এরপরে গনগনির কাছে গাড়িতে তাঁকে ধর্ষণ করা হয়। তাঁর চিৎকারে আশপাশের লোকেরা জড়ো হয়ে যায়। সেই সময় গাড়ির দরজা খুলে তাঁকে ফেলে পালানোর চেষ্টা করে অভিযুক্তরা। ওই যুবতীর পরিজনেদের দাবি, গাড়িতে গণধর্ষণের পরে ওই যুবতীকে খুন করারও চেষ্টা হয়েছিল। পুলিশ জানায়, জিজ্ঞাসাবাদে অভিযুক্তরা দাবি করেছে, ধর্ষণের অভিযোগ মিথ্যা। ওই যুবতী পড়ে গিয়েছিল। তাঁকে ঠেলে ফেলে দেওয়া হয়নি।





আরো খবর