রোববার, ২১ জানুয়ারী ২০১৮, ৮ মাঘ ১৪২৪, ৪ জমাদিউল আওয়াল, ১৪৩৯ | ০২:৪৫ অপরাহ্ন (GMT)
শিরোনাম :
  • নির্বাচনকালীন সরকারের রূপরেখা রাষ্ট্রপতিকে দিয়েছে আ.লীগ: কাদের
  • ইসি নয়, নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে হার্ডলাইনে যাবে বিএনপি


বৃহস্পতিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৭ ০৬:৫৮:৪৮ অপরাহ্ন Zoom In Zoom Out No icon

ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা কিশোরীর সন্তান প্রসব

গাজীপুর: গাজীপুরের শ্রীপুরে তেলিহাঠি ইউনিয়নের সাইটালিয়া গ্রামে ধর্ষণে শিকার হওয়া অন্তঃসত্ত্বা কিশোরী (১২) বুধবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কন্যা সন্তান প্রসব করেছে। বর্তমানে মা ও নবজাতক উভয়ই সুস্থ রয়েছে। কিশোরীর স্বজনরা জানান, বিভিন্ন ঘটনার আলোকে মাকে ছাড়া কিশোরী তার বাবাকে নিয়ে পার্শ্ববর্তী টেংরা গ্রামের ফুফুর বাড়িতে গত একমাস ধরে অবস্থান করছিল। গতকাল বুধবার বিকালে কিশোরীর প্রসব বেদনা শুরু হলে তাকে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছিল। পরে রাতে অবস্থার অবনতি হলে চিকিৎসার জন্য তাকে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়। সেখানেই স্বাভাবিকভাবে কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। শ্রীপুর উপজেলা পরিবার ও পরিকল্পনা কর্মকর্তা মঈনুল হক খান জানান, সরকারিভাবে কিশোরীর প্রসব পূর্ববর্তী ও পরবর্তী সব চিকিৎসার দায়িত্ব থাকায় রাতে আবাসিক চিকিৎসক হাবীবা সুলতানার অধীনে সুস্থ স্বাভাবিকভাবে কন্যা সন্তান প্রসব করে কিশোরী। বর্তমানে উভয়ই সুস্থ রয়েছে। উল্লেখ্য, গত ২২ সেপ্টেম্বর ধর্ষণে কিশোরীর অন্তঃসত্ত্বার ঘটনায় শ্রীপুর থানায় উপজেলার তেলিহাটি ইউনিয়নের সাইটালিয়া গ্রামের নুরু মিয়ার ছেলে আমান উল্লাহকে (২৬) আসামি করে শ্রীপুর থানায় মামলা হয়। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত মূল অভিযুক্ত আমান উল্ল্যাহ্কে আটক করতে না পারলেও সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে কিশোরীর আত্মীয় উপজেলার সাইটালিয়া গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে হুমায়ুন কবিরকে গত ১৯ নভেম্বর গ্রেপ্তার করে শ্রীপুর থানা পুলিশ। এদিকে কিশোরীর মা হওয়ার খবরে ইতিমধ্যে গাজীপুর জেলা প্রশাসক দেওয়ান মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির সরকারিভাবে কিশোরী ও তার সন্তানের দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেহেনা আকতার শীর্ষনিউজকে বলেন, সংবাদ পেয়ে রাতেই ওই কিশোরী মা ও নবজাতককে দেখার জন্য শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে উপস্থিত হয়েছি। খোঁজ খবর নিয়েছি, দু'জনেই সুস্থ আছে।




আরো খবর