রোববার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭, ৩ পৌষ ১৪২৪, ২৮ রবিউল আওয়াল, ১৪৩৯ | ১২:২৫ পূর্বাহ্ন (GMT)
শিরোনাম :
  • নির্বাচনকালীন সরকারের রূপরেখা রাষ্ট্রপতিকে দিয়েছে আ.লীগ: কাদের
  • ইসি নয়, নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে হার্ডলাইনে যাবে বিএনপি


শনিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০১৭ ১১:৪৫:০৩ পূর্বাহ্ন Zoom In Zoom Out No icon

৪ বছরের স্কুলছাত্রীকে যৌন হয়রানি, ২ শিক্ষক গ্রেপ্তার

একটি নামি ইংরাজি মাধ্যম স্কুলে এক চার বছরের শিশুকে যৌন নির্যাতনের ঘটনায় ২ শিক্ষককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে কলকাতার রাণিকুঠিতে অবস্থিত জিডি বিড়লা স্কুলে। জানা গেছে, শিশুদের ওপর যৌন নিগ্রহ মোকাবিলা আইন বা পকসো আইনে অভিযুক্ত দুই পিটি শিক্ষক অভিষেক রায় ও মহম্মদ মফিজুদ্দিনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে যাদবপুর থানায় স্কুলের পিটি শিক্ষকের বিরুদ্ধে শিশুটির উপর শারীরিক অত্যাচার চালানোর অভিযোগ দায়ের করেন পরিবার। কিন্তু শুক্রবার তদন্তেÍ পুলিশ জানতে পারে, শিশুটির ওপর একজন নয়, দুজন মিলে অত্যাচার চালিয়েছে। বৃহস্পতিবার স্কুল ছুটির পর বাড়ি ফিরে মায়ের কাছে ভয়ঙ্কর ঘটনার কথা জানায় আতঙ্কিত শিশু। এরপরই তাকে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যান বাবা-মা। শিশুটির উপর শারীরিক নির্যাতন চালানো হয়েছে বলে জানান চিকিৎসক। পরে শিশুটিকে এসএসকেএমের স্ত্রী রোগ বিভাগে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানে শুক্রবার তার মেডিকেল পরীক্ষাও হয়েছে। ছাত্রীটি কিছুটা সুস্থ হয়ে উঠলে তার কাউন্সেলিং করা হবে বলে হাসপাতালের তরফ থেকে জানানো হয়েছে। এদিকে, শুক্রবার ঘটনা জানাজানি হতেই সারাদিন ধরে স্কুলের সামনে অভিবাবকরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। আভিভাবকদের অভিযোগ, এর আগেও এই স্কুলে ৪ বছরের ছাত্রীর উপর যৌন নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছিল। স্কুলের অধ্যক্ষ আগেও ঘটনা এড়িয়ে গিয়েছিলেন। শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় একে “বর্বরোচিত কাজ” আখ্যা দিয়ে বলেছেন, একটি বেসরকারি স্কুলে এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে। পিটি টিচার জড়িত বলে জানা গিয়েছে। আমাদের বোর্ডের স্কুল নয়। কিন্তু আমাদের দায়িত্ব রয়েছে। কঠোর শাস্তি যাতে হয়, তার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছি। মন্ত্রী আরও বলেন, তিন বছর আগেও ওই স্কুলে এমন একটা ঘটনা ঘটেছিল। আমরা ওই পরিবারের পাশে আছি। এত নামি স্কুলে নিরাপত্তা এমন কেন হবে, আমরা সেটা দেখার দায়িত্ব নিচ্ছি। -ভারতীয় সংবাদমাধ্যম





আরো খবর