শুক্রবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৭ আশ্বিন ১৪২৪, ১ মুহাররম, ১৪৩৯ | ০১:০৬ পূর্বাহ্ন (GMT)
শিরোনাম :
  • নির্বাচনকালীন সরকারের রূপরেখা রাষ্ট্রপতিকে দিয়েছে আ.লীগ: কাদের
  • ইসি নয়, নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে হার্ডলাইনে যাবে বিএনপি
সোমবার, ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ০৫:৫৫:১৯ পূর্বাহ্ন Zoom In Zoom Out No icon

ফের ভার্চুয়ালযুদ্ধে অপু-বুবলী!

ঢাকা: ফের বাক ও ভার্চুয়ালযুদ্ধে লিপ্ত হয়েছেন চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস ও শবনম বুবলী। ঈদে একটি টিভি চ্যানেলে অতিথি হয়ে অপু বিশ্বাস বলেছিলেন, ‘ভাবছি আমি, শাকিব, বুবলী ও জয় একসঙ্গে ঈদের ছবি দেখতে যাব। বুবলীর কোলে আমার ছেলেকে দেব। আর আমি শাকিবকে ধরে থাকব। কারণ শুধু ছেলের বাবাকে দেখলেই তো হবে না, ছেলেকেও দেখতে হবে। তাই ভাবছি আমার ছেলেকে বুবলীর কোলে দেব। বাচ্চা হওয়ার জন্য যখন ভারতে গেলাম, তখন ও (বুবলী) ছেলের বাবাকে দেখে রাখল। এখন যেহেতু ছেলে হয়ে গেছে, তাকে দেখুক। বাচ্চার প্রতি বুবলীর ফ্যাসিনেশন আমার থেকে বেশি বলে মনে হয়।’ টিভি অনুষ্ঠানে অপু এমন কথা বলার পর সবাই ভাবছিলেন বুবলী হয়তো এখনই পাল্টা কোনো জবাব দেবেন। কিন্তু না, তাৎক্ষণিক কোনো প্রতিক্রিয়া দেখাননি ‘বসগিরি’খ্যাত নায়িকা। সবাই হয়তো ভেবেছিলেন, বিষয়টা গুরুত্বই দেননি বুবলী। তবে শনিবার রাতে অপুর কথার পাল্টা জবাব দিলেন তিনি। যদিও স্ট্যাটাসে অপুর নাম উল্লেখ করেননি। কিন্তু কথার ধরন দেখে কারোরই বুঝতে বাকি নেই যে, এগুলো অপুকে উদ্দেশ করেই লেখা। নিচে বুবলীর স্ট্যাটাসটি তুলে ধরা হলো- “আমাকে নিয়ে আর কত ষড়যন্ত্র করবি? আর কত ক্ষতি করার চেষ্টা করবি? কিছু মানুষকে দিয়ে আমার বিরুদ্ধে আর কত ছোটলোকই করাবি? আর কত ধোঁকা দিবি মানুষকে? তোর মুখের ভাষা, কথাবার্তা, আচার-আচরণ, হাসি দেখলেই মানুষ বোঝে; তুই কোন ক্যাটাগরির। তোর ব্যাকগ্রাউন্ড নিয়ে কথা বলার রুচিও নেই। তোর ব্যাকগ্রাউন্ড নিয়ে কথা বললে তো ছেড়ে দে মা কেঁদে বাঁচি অবস্থা হবে। আর আমার মনে হয়, কিছু মানুষ জানে তোর ব্যাপারে যে, তুই আসলে কী? কোন যোগ্যতায় তুই আমাকে নিয়ে কথা বলিস? আমাকে নিয়ে সারাক্ষণ পড়ে থাকিস? নিজেকে আলোচনায় রাখতে? রাখ। এটাই পারবি তুই। সত্যিকে মিথ্যা আর মিথ্যাকে সত্যি বানিয়ে অট্টহাসি দিয়ে বাজে কথা বলে, মানুষকে ব্ল্যাকমেইল করে, হাত করে তাদের ক্ষতি করাই তোর কাজ। করতে থাক। আল্লাহ আছেন একজন। তবে একটা কথা মনে রাখিস, জোর করে আর ছোটলোকই করে, ব্ল্যাকমেইল করে অন্যের ক্ষতি করে, হিংসামি করে কখনই কিছু হয় না। হয়তো সাময়িক কিন্তু স্থায়ী না। কথায় আছে কুকুর মানুষকে কামড়ালে, মানুষ কুকুরকে কামড়ায় না। তাই তোর কাজই কামড়ানো। ছোটলোক কোথাকার, তোর নাম উচ্চারণ করারও রুচি নেই। ছিঃ!” এদিকে বুবলীর এমন স্ট্যাটাসের প্রতিবাদ করেছেন ঢাকাই ছবির দুই নায়িকা রোমানা নীড় ও বিপাশা কবির। স্ট্যাটাসের পরিপ্রেক্ষিতে তারা শিল্পী সমিতির ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন। স্ট্যাটাসের স্ক্রিনশট শেয়ার করে রোমানা নীড় ব্যাঙ্গ করে লেখেন, ‘ওরে আমার শিক্ষিত আফা রে। চোরের মায়ের আবার বড় গলা। আফা আপনার ব্যবহার দেখে বুঝতে পারছি আপনি কোন ফ্যামিলির মেয়ে।’ আর বিপাশা কবির প্রথমে কমেন্ট করলেও পরে তা মুছে ফেলেন। এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘অপু বিশ্বাস চলচ্চিত্রের একজন সিনিয়র শিল্পী। তাকে ছোট করে এমন কথা বলা উচিত হয়নি বুবলীর। আর ইন্ডাস্ট্রিতে শিক্ষিত মেয়েরা নেই, এটাও ভুল। শিক্ষিত অনেক মেয়েই এখানে কাজ করছে। উদাহরণ হিসেবে বলতে পারি, আমি সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পড়াশোনা করছি, মিষ্টি জান্নাত ডেন্টালে পড়েছে। আমি ছোট একজন শিল্পী হলেও আমার আত্মসম্মানবোধ আছে। অপুদিকে (অপু বিশ্বাস) নিয়ে এমন স্ট্যাটাস দেওয়া ঠিক হয়নি। শিল্পী সমিতির বিষয়টি দেখা উচিত।’ এ বিষয়ে বুবলীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘এ প্রসঙ্গে আর কিছুই বলার নেই। আমি সব সময় এড়িয়ে যাই। কিন্তু কেউ আছে যে, বিভিন্ন সময় আমার ক্ষতি করার চেষ্টা করেই যাচ্ছে। ওরা আসলে ভদ্রতা নিতে পারে না, পেয়ে বসে।’

CLOSE[X]CLOSE

আরো খবর